ঢাকা ০৭:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ইরান রক্তমাখা টাকা আয় করছে : জেলেনস্কি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৯:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৪০ বার পড়া হয়েছে

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি ইরানকে দায়ী করে বলেছেন, রাশিয়াকে ‘কামিকাজে ড্রোন’ দিয়ে তারা রক্তমাখা টাকা নিচ্ছে। এসব ড্রোন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে প্রাণনাশক হামলা চালাচ্ছে।

সেপ্টেম্বরে ইউক্রেনে রাশিয়ার ড্রোন হামলা বেড়ে যায়। যুক্তরাষ্ট্র জানায় শহীদ-১৩৬ নামের ড্রোন ইরানের কাছ থেকে কিনে এনেছে রাশিয়া। তবে এসব দাবি অস্বীকার করেছে ইরান। যদিও ইরানের ড্রোন ব্যবহার করার একাধিক প্রমাণ পাওয়ার দাবি করেছে ইউক্রেন।

ইরানের সমালোচনা করে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি কানাডার সিটিভিকে বুধবার বলেন, আমি ইরানের নেতৃবৃন্দকে বিশ্বাস করি না। তারা প্রকাশ্যে সবকিছু অস্বীকার করে, বলে আমরা কিছু বিক্রি করিনি। কিন্তু আমরা এখানে দেখি, ইউক্রেনে, শহরে, বেসামরিক স্থাপনায়, স্কুলে, বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইরানি ড্রোন দিয়ে) কয়েকশ হামলা এবং এগুলো আমাদের জ্বালানি অবকাঠামো বন্ধ করে দিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ইরান তাদের ড্রোন সরবরাহ করছে। তাদের হত্যা সরবরাহ করছে, ইউক্রেনের মানুষের হত্যা সরবরাহ করছে। এটিতেই তারা সম্মত হয়েছে। টাকার জন্য সম্মত হয়েছে। রক্তমাখা টাকা ইরান আয় করছে। সূত্র: সিএনএন ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ইরান রক্তমাখা টাকা আয় করছে : জেলেনস্কি

আপডেট সময় : ০৬:৪৯:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি ইরানকে দায়ী করে বলেছেন, রাশিয়াকে ‘কামিকাজে ড্রোন’ দিয়ে তারা রক্তমাখা টাকা নিচ্ছে। এসব ড্রোন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে প্রাণনাশক হামলা চালাচ্ছে।

সেপ্টেম্বরে ইউক্রেনে রাশিয়ার ড্রোন হামলা বেড়ে যায়। যুক্তরাষ্ট্র জানায় শহীদ-১৩৬ নামের ড্রোন ইরানের কাছ থেকে কিনে এনেছে রাশিয়া। তবে এসব দাবি অস্বীকার করেছে ইরান। যদিও ইরানের ড্রোন ব্যবহার করার একাধিক প্রমাণ পাওয়ার দাবি করেছে ইউক্রেন।

ইরানের সমালোচনা করে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি কানাডার সিটিভিকে বুধবার বলেন, আমি ইরানের নেতৃবৃন্দকে বিশ্বাস করি না। তারা প্রকাশ্যে সবকিছু অস্বীকার করে, বলে আমরা কিছু বিক্রি করিনি। কিন্তু আমরা এখানে দেখি, ইউক্রেনে, শহরে, বেসামরিক স্থাপনায়, স্কুলে, বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইরানি ড্রোন দিয়ে) কয়েকশ হামলা এবং এগুলো আমাদের জ্বালানি অবকাঠামো বন্ধ করে দিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ইরান তাদের ড্রোন সরবরাহ করছে। তাদের হত্যা সরবরাহ করছে, ইউক্রেনের মানুষের হত্যা সরবরাহ করছে। এটিতেই তারা সম্মত হয়েছে। টাকার জন্য সম্মত হয়েছে। রক্তমাখা টাকা ইরান আয় করছে। সূত্র: সিএনএন ।