ঢাকা ১০:০৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ইমরানুরের হতাশার রাতে সাফল্য পেলেন মাহফুজুর

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:০৮:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৯৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গত বছর কাজাখস্তানে এশিয়ান ইনডোর অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে ৬ দশমিক ৫৯ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জিতেছিলেন ইমরানুর রহমান। এবারও শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার সুযোগ ছিল এই স্প্রিন্টারের। যদিও প্রত্যাশার ধারেকাছেও যেতে পারেননি বাংলাদেশের দ্রুততম মানব। তবে, ইমরানুরের হতাশার রাতে সাফল্য পেলেন আরেক অ্যাথলেট মাহফুজুর রহমান।

গতকাল সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) তেহরানে অনুষ্ঠিত এশিয়ান ইনডোর অ্যাথলেটিকসে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন বাংলাদেশের এই হাই জাম্পার। মাহফুজুর ব্রোঞ্জ জিতেছেন ২ দশমিক ১৫ মিটার উচ্চতায় লাফিয়ে। চীনের অ্যাথলেট মা জিয়াও লাফিয়েছেন একই উচ্চতায়। দুজনের মধ্যে তৃতীয় হিসেবে মাহফুজুরকে বেছে নেওয়ার কারণ কম সংখ্যকবার লাফিয়েই তিনি ওই উচ্চতা অতিক্রম করেছেন। তার পাশাপাশি সুসংবাদ শুনিয়েছেন বাংলাদেশের আরেক স্প্রিন্টার জহির রায়হান। ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে রুপা জেতেন তিনি। সময় নিয়েছেন ৪৮ দশমিক ১০ সেকেন্ড।

অন্যদিকে, সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশা ছিল যে ইমরানুরকে নিয়ে, তিনিই করেছেন হতাশ। গতবার ৬০ মিটার স্প্রিন্টে সোনার পদক জিতলেও এবার সেই ইভেন্টেই হয়েছেন চতুর্থ। সেমিফাইনালে নিজের হিটে দ্বিতীয় হয়ে ফাইনালে উঠেছিলেন এই অ্যাথলেট। সেমিফাইনালে তিনি সময় নিয়েছিলেন ৬ দশমিক ৬০ সেকেন্ড। সেই টাইমিংটা ফাইনালে ধরে রাখতে পারলেও ব্রোঞ্জ জিততে পারতেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ইমরানুরের হতাশার রাতে সাফল্য পেলেন মাহফুজুর

আপডেট সময় : ১২:০৮:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

গত বছর কাজাখস্তানে এশিয়ান ইনডোর অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে ৬ দশমিক ৫৯ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জিতেছিলেন ইমরানুর রহমান। এবারও শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার সুযোগ ছিল এই স্প্রিন্টারের। যদিও প্রত্যাশার ধারেকাছেও যেতে পারেননি বাংলাদেশের দ্রুততম মানব। তবে, ইমরানুরের হতাশার রাতে সাফল্য পেলেন আরেক অ্যাথলেট মাহফুজুর রহমান।

গতকাল সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) তেহরানে অনুষ্ঠিত এশিয়ান ইনডোর অ্যাথলেটিকসে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন বাংলাদেশের এই হাই জাম্পার। মাহফুজুর ব্রোঞ্জ জিতেছেন ২ দশমিক ১৫ মিটার উচ্চতায় লাফিয়ে। চীনের অ্যাথলেট মা জিয়াও লাফিয়েছেন একই উচ্চতায়। দুজনের মধ্যে তৃতীয় হিসেবে মাহফুজুরকে বেছে নেওয়ার কারণ কম সংখ্যকবার লাফিয়েই তিনি ওই উচ্চতা অতিক্রম করেছেন। তার পাশাপাশি সুসংবাদ শুনিয়েছেন বাংলাদেশের আরেক স্প্রিন্টার জহির রায়হান। ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে রুপা জেতেন তিনি। সময় নিয়েছেন ৪৮ দশমিক ১০ সেকেন্ড।

অন্যদিকে, সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশা ছিল যে ইমরানুরকে নিয়ে, তিনিই করেছেন হতাশ। গতবার ৬০ মিটার স্প্রিন্টে সোনার পদক জিতলেও এবার সেই ইভেন্টেই হয়েছেন চতুর্থ। সেমিফাইনালে নিজের হিটে দ্বিতীয় হয়ে ফাইনালে উঠেছিলেন এই অ্যাথলেট। সেমিফাইনালে তিনি সময় নিয়েছিলেন ৬ দশমিক ৬০ সেকেন্ড। সেই টাইমিংটা ফাইনালে ধরে রাখতে পারলেও ব্রোঞ্জ জিততে পারতেন।