ঢাকা ০৯:৪৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ইতালিতে বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১৩

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪২:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ মে ২০২৩
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়েছে ইতালি। উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ এমিলিয়া-রোমাগনায় টানা বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে এখন পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১৯শে মে) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতালিতে ২০ টিরও বেশি নদীর পানি বেড়েছে। বেশ কয়েকটি নদীর তীর ভেঙে প্লাবিত হয় বিস্তীর্ণ এলাকা। বোলোগনা এবং উত্তর-পূর্ব উপকূলের প্রতিটি নদী প্লাবিত হয়েছে। এসব স্থানে প্রায় ২৮০টি ভূমিধস হয়েছে।

পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন লক্ষাধিক মানুষ। ইতোমধ্যে কয়েক হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেক মানুষ। ইতালির বৃহত্তম কৃষি সংস্থা কোল্ডিরেত্তির মতে, বন্যায় ৩ হাজারের মতো বাড়িঘর এবং দোকান ধ্বংস হয়েছে। প্রদেশের ৫ হাজারের বেশি খামার পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

সিএনএন জানিয়েছে, গত ৩৬ ঘণ্টায় এমিলিয়া রোমাগনায় যে পরিমাণ বৃষ্টিপাত হয়েছে, তা সেখানে বাৎসরিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণের অর্ধেকেরও বেশি। তুমুল বৃষ্টির ফলে নদী ও অন্যান্য জলাশয়ের পানি উপচে পড়ায় প্রদেশটির হাজার হাজার একর কৃষিজমি তলিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ইতালিতে বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১৩

আপডেট সময় : ০১:৪২:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ মে ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়েছে ইতালি। উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ এমিলিয়া-রোমাগনায় টানা বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে এখন পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১৯শে মে) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতালিতে ২০ টিরও বেশি নদীর পানি বেড়েছে। বেশ কয়েকটি নদীর তীর ভেঙে প্লাবিত হয় বিস্তীর্ণ এলাকা। বোলোগনা এবং উত্তর-পূর্ব উপকূলের প্রতিটি নদী প্লাবিত হয়েছে। এসব স্থানে প্রায় ২৮০টি ভূমিধস হয়েছে।

পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন লক্ষাধিক মানুষ। ইতোমধ্যে কয়েক হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেক মানুষ। ইতালির বৃহত্তম কৃষি সংস্থা কোল্ডিরেত্তির মতে, বন্যায় ৩ হাজারের মতো বাড়িঘর এবং দোকান ধ্বংস হয়েছে। প্রদেশের ৫ হাজারের বেশি খামার পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

সিএনএন জানিয়েছে, গত ৩৬ ঘণ্টায় এমিলিয়া রোমাগনায় যে পরিমাণ বৃষ্টিপাত হয়েছে, তা সেখানে বাৎসরিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণের অর্ধেকেরও বেশি। তুমুল বৃষ্টির ফলে নদী ও অন্যান্য জলাশয়ের পানি উপচে পড়ায় প্রদেশটির হাজার হাজার একর কৃষিজমি তলিয়েছে।