ঢাকা ১২:৪২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ইডেন কলেজে অধ্যক্ষের কক্ষে আটকে ছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৫১:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২
  • / ৫০১ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
রাজধানীর ইডেন মহিলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সুপ্রিয়া ভট্টাচার্যের কক্ষে ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে এক শিক্ষার্থীকে মানসিক হয়রানি ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

এ বিষয়ে গত সোমবার রাজধানীর গণস্বাস্থ্য হাসপাতালের সামনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নির্যাতনের শিকার ওই শিক্ষার্থী।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর নাম নুসরাত জাহান কেয়া। তিনি কলেজের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী এবং ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি। সোমবার কেয়া রাজধানীর গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলন কেয়া অভিযোগ করে বলেন, আমি ১২টার সময়ে ট্রান্সক্রিপ্টের জন্য এবং অফিশিয়াল কিছু কাজে গেলে শিক্ষকেরা আমাকে অধ্যক্ষের রুমে নিয়ে যান। সেখানে আমাকে ৬ ঘণ্টা নানাভাবে হয়রানির পর জোরপূর্বক একটি অঙ্গীকারনামা নেয়। সেখানে শিক্ষকদের মানসিক নির্যাতনে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি।

কেয়া বলেন, ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের নির্যাতন, চাঁদাবাজি ও সিট বাণিজ্যের বিষয়ে আমি রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এক মানববন্ধনে বক্তব্য দিয়েছিলাম; তাই আমাকে জোরপূর্বক অঙ্গীকারনামা দিতে বাধ্য করা হয়েছে।

তবে কলেজটির অধ্যক্ষ সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘ও আমাদের শিক্ষার্থী। তাকে কেন নির্যাতন করা হবে? হয়রানি, নির্যাতনের প্রশ্নই ওঠে না।’

এদিকে, কলেজ একাডেমিক কাউন্সিলের এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে গণমাধ্যমকে জানান, ‘কেয়াকে আমরা অধ্যক্ষের রুমে নিয়ে গিয়েছিলাম। তার কাছ থেকে একটি লিখিত নেয়া হয়েছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

ইডেন কলেজে অধ্যক্ষের কক্ষে আটকে ছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৯:৫১:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
রাজধানীর ইডেন মহিলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সুপ্রিয়া ভট্টাচার্যের কক্ষে ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে এক শিক্ষার্থীকে মানসিক হয়রানি ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

এ বিষয়ে গত সোমবার রাজধানীর গণস্বাস্থ্য হাসপাতালের সামনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নির্যাতনের শিকার ওই শিক্ষার্থী।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর নাম নুসরাত জাহান কেয়া। তিনি কলেজের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী এবং ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি। সোমবার কেয়া রাজধানীর গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলন কেয়া অভিযোগ করে বলেন, আমি ১২টার সময়ে ট্রান্সক্রিপ্টের জন্য এবং অফিশিয়াল কিছু কাজে গেলে শিক্ষকেরা আমাকে অধ্যক্ষের রুমে নিয়ে যান। সেখানে আমাকে ৬ ঘণ্টা নানাভাবে হয়রানির পর জোরপূর্বক একটি অঙ্গীকারনামা নেয়। সেখানে শিক্ষকদের মানসিক নির্যাতনে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি।

কেয়া বলেন, ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের নির্যাতন, চাঁদাবাজি ও সিট বাণিজ্যের বিষয়ে আমি রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এক মানববন্ধনে বক্তব্য দিয়েছিলাম; তাই আমাকে জোরপূর্বক অঙ্গীকারনামা দিতে বাধ্য করা হয়েছে।

তবে কলেজটির অধ্যক্ষ সুপ্রিয়া ভট্টাচার্য নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘ও আমাদের শিক্ষার্থী। তাকে কেন নির্যাতন করা হবে? হয়রানি, নির্যাতনের প্রশ্নই ওঠে না।’

এদিকে, কলেজ একাডেমিক কাউন্সিলের এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে গণমাধ্যমকে জানান, ‘কেয়াকে আমরা অধ্যক্ষের রুমে নিয়ে গিয়েছিলাম। তার কাছ থেকে একটি লিখিত নেয়া হয়েছে।’