ঢাকা ০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আসল খেলা হবে ডিসেম্বরে: ওবায়দুল কাদের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৮:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২
  • / ৫১৬ বার পড়া হয়েছে

বক্তব্য রাখছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন ভুলে যান। এ লাখ লাখ লোক নিয়েই খেলা হবে। ডিসেম্বরে বিজয়ের মাস। জনতার বিজয়ের জয়ধ্বনি শুনতে পারবেন। খেলা হবে, কী খেলা হবে? ভোট চুরি ও ভোট জালিয়াতির বিরুদ্ধে খেলা হবে। দুর্নীতি লুটপাটের বিরুদ্ধে খেলা হবে। নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে খেলা হবে। রাজপথে মোকাবেলা হবে বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ রোববার (২৩ অক্টোবর) ফতুল্লার ইসদাইরের ওসমানী স্টেডিয়ামে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সংবিধানে যা আছে সেভাবেই নির্বাচন হবে। সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না। বিএনপির মতো গুণ্ডা দিয়ে ১১টার আগে ভোট শেষ হবে না।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের মানুষ সংগ্রামী মানুষ। শামীম ওসমান নিজে অলরাউন্ডার ব্যাটসম্যান। নারায়ণগঞ্জের শক্তি হচ্ছে এরা লক্ষ লক্ষ লোক আজ এখানে। মাঠে যা বাইরে তার চেয়েও বেশি।

বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, কাপুরুষের মতো মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে চলে যায় কে সে? খেলা হবে হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে। শেখ হাসিনার চেয়ে ভালো ও সৎ মানুষ রাজনীতিতে নেই। আগামী নির্বাচনে সৎ মানুষকেই জয়ী করবে। শেখ হাসিনাই আসবে। বাংলার মানুষ চেহারা দেখে ভোট দেয় না। উন্নয়ন দেখে ভোট দেয়। বৈশ্বিক সংকটের জন্য আমাদের দোষ দেবেন না। আগে বিদ্যুৎ গ্যাসের সঙ্কট ছিল না। ক্ষমতার বদল চাইলে বিএনপিকে আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে হবে।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বসন্তের কোকিলরা আছে, দুঃসময়ের কর্মীরা নেই। কোকিলদের আওয়ামী লীগে দরকার নাই। কে কি করেন তা সব শেখ হাসিনা জানেন। পয়সা খেয়ে যারা কমিটি করে তারা দলের শত্রু। ভালো হয়ে যান। সুসময়ের নেতাদের দরকার নেই।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু হাসনাত মো. শহিদ বাদলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কার্যকারি পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট রিয়াজুল কবীর কাওছার, কার্যকরি পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন, কার্যকরি পরিষদের সদস্য সাহাবউদ্দিন ফরাজী, পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামীম ওসমান এমপি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন ১৯৯৭ সালের ২০ ডিসেম্বরে হয়েছিল। তখন অধ্যাপিকা নাজমা রহমান সভাপতি ও বর্তমান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আসল খেলা হবে ডিসেম্বরে: ওবায়দুল কাদের

আপডেট সময় : ০৯:৩৮:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন ভুলে যান। এ লাখ লাখ লোক নিয়েই খেলা হবে। ডিসেম্বরে বিজয়ের মাস। জনতার বিজয়ের জয়ধ্বনি শুনতে পারবেন। খেলা হবে, কী খেলা হবে? ভোট চুরি ও ভোট জালিয়াতির বিরুদ্ধে খেলা হবে। দুর্নীতি লুটপাটের বিরুদ্ধে খেলা হবে। নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে খেলা হবে। রাজপথে মোকাবেলা হবে বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ রোববার (২৩ অক্টোবর) ফতুল্লার ইসদাইরের ওসমানী স্টেডিয়ামে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সংবিধানে যা আছে সেভাবেই নির্বাচন হবে। সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না। বিএনপির মতো গুণ্ডা দিয়ে ১১টার আগে ভোট শেষ হবে না।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের মানুষ সংগ্রামী মানুষ। শামীম ওসমান নিজে অলরাউন্ডার ব্যাটসম্যান। নারায়ণগঞ্জের শক্তি হচ্ছে এরা লক্ষ লক্ষ লোক আজ এখানে। মাঠে যা বাইরে তার চেয়েও বেশি।

বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, কাপুরুষের মতো মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে চলে যায় কে সে? খেলা হবে হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে। শেখ হাসিনার চেয়ে ভালো ও সৎ মানুষ রাজনীতিতে নেই। আগামী নির্বাচনে সৎ মানুষকেই জয়ী করবে। শেখ হাসিনাই আসবে। বাংলার মানুষ চেহারা দেখে ভোট দেয় না। উন্নয়ন দেখে ভোট দেয়। বৈশ্বিক সংকটের জন্য আমাদের দোষ দেবেন না। আগে বিদ্যুৎ গ্যাসের সঙ্কট ছিল না। ক্ষমতার বদল চাইলে বিএনপিকে আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে হবে।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বসন্তের কোকিলরা আছে, দুঃসময়ের কর্মীরা নেই। কোকিলদের আওয়ামী লীগে দরকার নাই। কে কি করেন তা সব শেখ হাসিনা জানেন। পয়সা খেয়ে যারা কমিটি করে তারা দলের শত্রু। ভালো হয়ে যান। সুসময়ের নেতাদের দরকার নেই।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু হাসনাত মো. শহিদ বাদলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কার্যকারি পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট রিয়াজুল কবীর কাওছার, কার্যকরি পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন, কার্যকরি পরিষদের সদস্য সাহাবউদ্দিন ফরাজী, পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামীম ওসমান এমপি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন ১৯৯৭ সালের ২০ ডিসেম্বরে হয়েছিল। তখন অধ্যাপিকা নাজমা রহমান সভাপতি ও বর্তমান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন।