মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১০:১৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সেনবাগে এক বিদ্যালয়ের ৪৩ এসএসসি ভোকেশনাল শিক্ষার্থীর সকলেই ফেল! ১০ শিক্ষক অবরুদ্ধ সুইস বাধা ডিঙিয়ে শেষ ষোলোয় ব্রাজিল রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি পরিবারের মাঝে ৮ শ’ ভেড়া বিতরণ শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয় ঘানার গুলিস্তানে রেডজোনে দোকান বসানোয় পাঁচজনের জেল জামানত নয়, কৃষিঋণে কৃষকের এনআইডি যথেষ্ট: কৃষিসচিব সমকাল সাংবাদিক শিমুলের ছেলে সাদিক ভবিষ্যতে প্রকৌশলী হতে চায় কৃষকের কোমরে দড়ি, যাদের কাছে হাজার কোটি টাকা তাদের কিছু হয় না : আপিল বিভাগ ‘লগে আছি ডটকম’-এর এমডি গ্রেফতার! ৩২ বছর আগের নায়িকাকে নিয়ে সালমান ফিরছেন রিমেক নিয়ে আমার আপত্তি নেই : ইয়োহানি জার্সিতে পা লাগায় মেসিকে মেক্সিকান বক্সারের হুমকি! একসঙ্গে জিপিএ-৫ পেলেন বাবা-ছেলে! কোটি কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে, আমরা কি চেয়ে চেয়ে দেখব : হাইকোর্ট প্রেমিকার ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে চাঁদা দাবিতে আটক ৩

আলিবাবা ৪০ চোরের চেয়ে বড় চোর তারেক রহমান : তথ্যমন্ত্রী

আলিবাবা ৪০ চোরের চেয়ে বড় চোর তারেক রহমান: তথ্যমন্ত্রী

নাটোর প্রতিনিধি : 
আলিবাবা ৪০ চোরের চেয়ে বড় চোর তারেক রহমান বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে নাটোরের গুরুদাসপুর সরকারি পাইলট স্কুলমাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, তাকে (তারেক রহমান) নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম স্বপ্ন দেখছেন জাতীয় সরকার করবেন। আবার বাংলা ভাই সৃষ্টি হবে। একসঙ্গে বোমা ফাটবে ৫ হাজার জায়গায়। যেখানে তারেক রহমান আতঙ্কের নাম।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের এমন উন্নয়নের বিপরীতে তারেক জিয়ার কথা মতো বিএনপির স্লোগান হয়েছে, ‘‘টেক ব্যাক বাংলাদেশ’’। অর্থাৎ তারা দেশকে পেছনে নিতে চায়। তারা তারেক জিয়ার নেতৃত্বে জাতীয় সরকারের ঘোষণা দিয়েছে, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে তারেক জিয়ার নেতৃত্বে আবারও হাওয়া ভবনের দুর্নীতিসহ দেশকে পেছনের দিকে নিয়ে যাবে।

হাছান মাহমুদ বলেন, ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের স্লোগান ছিল ‘‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’’, যা আজ বাস্তবায়ন হয়েছে। এখন দেশের প্রত্যেকের হাতে ফোন ও ইন্টারনেট। এর ফলে আগে যেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢাকার শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পারতেন, এখন বেশি ভর্তি হন ঢাকার বাইরের শিক্ষার্থী। তারা অনলাইনে ফরম পূরণ ও পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ভর্তি হচ্ছেন। এছাড়া দেশের বিভিন্ন সেবা এখন ডিজিটালাইজড হয়েছে, যার ফলে কমেছে মানুষের ভোগান্তি। এরপর ২০১৮ সালে আওয়ামী লীগের স্লোগান ছিল ‘‘গ্রাম হবে শহর’’, যা এখন বাস্তবায়িত হয়েছে।

নিজ দলের বিষয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, বিশ্বের কোনও সরকারই শতভাগ নির্ভুল কাজ করতে পারে না। তাই আওয়ামী লীগেরও কিছু ভুল-ত্রুটি রয়েছে। আগামীতে ক্ষমতায় গেলে সেই ভুলগুলো শুধরে দেশকে আরও এগিয়ে নিতে কাজ করবে সরকার। এ কারণে আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে নেতাকর্মীসহ সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

তথ্যমন্ত্রী  বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করেছেন। এখন আর কাউকে তালি দেয়া লুঙ্গি ও ছেড়া স্যান্ডেল পরতে দেখা যায় না। হতদরিদ্র মানুষ খুঁজে পাওয়া যায় না। এটা কারো জাদুতে হয়নি। এগুলো সম্ভব হয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার শক্তিশালী নেতৃত্বের কারণে।

মন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির ষড়যন্ত্রে উন্নয়ন থেমে থাকেনি। দেশ উন্নয়নের গতিতে চলছে। বিএনপির সময় মানুষ থাকার জায়গা পেতো না। এখন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গৃহহীনদের জমিসহ ঘর প্রদান করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি কী করেছে? বাংলা ভাইয়ের রাজত্ব কায়েম করেছে। সাধারণ মানুষের ওপর জুলুম-নির্যাতন চালিয়েছে। বাংলাদেশের পা ফাঁটা মানুষ আর কখনো বিএনপিকে ক্ষমতায় নিয়ে আসবে না।

জনগণ আওয়ামী লীগ সরকারকেই চায় উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার ওপর সাধারণ মানুষের আস্থা রয়েছে। সেই আস্থা ও ভরসা থেকেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে পুনরায় নির্বাচিত করবে। মানুষ বিএনপির ইতিহাস ভুলে গেছে। মানুষ বিএনপির দুঃশাসন আর অত্যাচারের দিনলিপি ভুলে গেছে। অথচ শেখ হাসিনার সরকার সেই দুঃশাসনের প্রতিশোধ নেয়নি।

মন্ত্রী বলেন, এখন শহরের মানুষ গ্রামে যেতে চায়। কারণ গ্রামকে শহরে পরিণত করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, প্রতিটি গ্রামে বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সেবা ছাড়াও অবকাঠামো সবকিছুর পরিবর্তন হয়েছে। বেড়েছে মানুষের আয়। এখন একজন শ্রমিক একদিনের পারিশ্রমিক দিয়ে ১২ থেকে ২০ কেজি চাল কিনতে পারেন। এভাবে বিভিন্ন সেক্টরে উন্নতির কারণে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দুস। সম্মানিত অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। অন্যদের মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি শহীদুল ইসলাম বকুল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে বর্তমান সভাপতি আনিসুর রহমানকে পুনরায় সভাপতি ও আব্দুল মতিনকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *