ঢাকা ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না: ফখরুল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:২০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৪৪৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যাওয়ার পথে বিজয়নগর মোড় থেকে পুলিশের বাধার মুখে পড়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। পরে তিনি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না।

শাহবাগ থানায় নাশকতার দুই মামলায় বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজিরা দিয়ে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা করেন ফখরুল। পরে বিজয়নগর মোড়ে পৌঁছালে তিনি পুলিশের বাধার মুখে পড়েন।

এদিন বিএনপির মহাসচিব দলীয় কার্যালয়ের দিকে যেতে চাইলে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সেখানে পুলিশ সদস্যদের ওপর বোমা ফেলা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে পুলিশ বিএনপি কার্যালয়ের ভেতর থেকে ককটেল বোমা উদ্ধার করেছে। এটা এখন প্লেস অব অফেনস। পুলিশের ক্রাইম সিনের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে কাউকে যেতে দেওয়া হবে না।

ফিরে যাওয়ার সময় মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, সম্পূর্ণ পরিকল্পিতভাবে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য হামলা চালানো হয়েছে। ১০ তারিখের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিকে নস্যাৎ করে দেওয়ার জন্য সরকারের হীন পরিকল্পনা। গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য, মানুষের অধিকারকে ধ্বংস করার জন্য, আমাদের রাজনৈতিক অধিকারকে হরণ করার জন্য তারা এ কাজগুলো করেছে। আমি যদি আমার নিজের অফিসে যেতে না পারি তাহলে কি করে একজন মানুষ রাজনৈতিক কাজ করবে।

দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার পথে বাধার মুখে পুলিশের সঙ্গে কথোপকথনের সময় মির্জা ফখরুল পুলিশকে বলেন, এটা আমার অফিস।

তিনি বলেন, বিএনপির পার্টি অফিসে কোনো ধরনের বিস্ফোরক ছিল না। পুলিশ এসব বোমা রেখেছে। বিএনপির শান্তিপূর্ণ সমাবেশ নস্যাৎ করতে সরকারের হীন পরিকল্পনার চক্রান্ত গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য, মানুষের অধিকারকে ধ্বংস করার জন্য। গণতান্ত্রিক অধিকার না থাকলে কীভাবে একটি গণতান্ত্রিক দল কাজ করবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সাংবিধানিক অধিকার স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করব— এটা এখানে নেই। গণতান্ত্রিক অধিকার তো দূরের কথা, মানুষ সভ্য সমাজে বাস করছে না।

এসময় দায়িত্ব থাকা পুলিশ কর্মকর্তা ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, অবশ্যই আপনার অফিস। ফখরুল পুলিশ কর্মকর্তাকে বলেন, আপনি পলিটিক্যাল লিডারের মতো কথা বলছেন। পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।

পরে সাংবাদিকদের কাছে বিএনপি মহাসচিব অভিযোগ করেন, আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না। তারা মিথ্যা কথা বলছে।

তিনি বলেন, পূর্বনির্ধারিত ১০ ডিসেম্বরের আমাদের ঢাকা বিভাগীয় শান্তিপূর্ণ গণসমাবেশ নস্যাৎ করতে সরকার হীন পরিকল্পনা করছে। ১০ তারিখে আমাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ হবে।

বিএনপির অফিস খুলে দেওয়ার দাবি জানান মির্জা ফখরুল। পাশাপাশি অবিলম্বে বিএনপি কার্যালয় খুলে দেওয়া এবং আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানান মির্জা ফখরুল।

এসময় আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকার গণসমাবেশ সুষ্ঠুভাবে করতে সরকারের কাছে সহযোগিতা চান বিএনপি মহাসচিব।

নিউজটি শেয়ার করুন

আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না: ফখরুল

আপডেট সময় : ১২:২০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যাওয়ার পথে বিজয়নগর মোড় থেকে পুলিশের বাধার মুখে পড়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। পরে তিনি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না।

শাহবাগ থানায় নাশকতার দুই মামলায় বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজিরা দিয়ে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা করেন ফখরুল। পরে বিজয়নগর মোড়ে পৌঁছালে তিনি পুলিশের বাধার মুখে পড়েন।

এদিন বিএনপির মহাসচিব দলীয় কার্যালয়ের দিকে যেতে চাইলে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সেখানে পুলিশ সদস্যদের ওপর বোমা ফেলা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে পুলিশ বিএনপি কার্যালয়ের ভেতর থেকে ককটেল বোমা উদ্ধার করেছে। এটা এখন প্লেস অব অফেনস। পুলিশের ক্রাইম সিনের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে কাউকে যেতে দেওয়া হবে না।

ফিরে যাওয়ার সময় মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, সম্পূর্ণ পরিকল্পিতভাবে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য হামলা চালানো হয়েছে। ১০ তারিখের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিকে নস্যাৎ করে দেওয়ার জন্য সরকারের হীন পরিকল্পনা। গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য, মানুষের অধিকারকে ধ্বংস করার জন্য, আমাদের রাজনৈতিক অধিকারকে হরণ করার জন্য তারা এ কাজগুলো করেছে। আমি যদি আমার নিজের অফিসে যেতে না পারি তাহলে কি করে একজন মানুষ রাজনৈতিক কাজ করবে।

দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার পথে বাধার মুখে পুলিশের সঙ্গে কথোপকথনের সময় মির্জা ফখরুল পুলিশকে বলেন, এটা আমার অফিস।

তিনি বলেন, বিএনপির পার্টি অফিসে কোনো ধরনের বিস্ফোরক ছিল না। পুলিশ এসব বোমা রেখেছে। বিএনপির শান্তিপূর্ণ সমাবেশ নস্যাৎ করতে সরকারের হীন পরিকল্পনার চক্রান্ত গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য, মানুষের অধিকারকে ধ্বংস করার জন্য। গণতান্ত্রিক অধিকার না থাকলে কীভাবে একটি গণতান্ত্রিক দল কাজ করবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সাংবিধানিক অধিকার স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করব— এটা এখানে নেই। গণতান্ত্রিক অধিকার তো দূরের কথা, মানুষ সভ্য সমাজে বাস করছে না।

এসময় দায়িত্ব থাকা পুলিশ কর্মকর্তা ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, অবশ্যই আপনার অফিস। ফখরুল পুলিশ কর্মকর্তাকে বলেন, আপনি পলিটিক্যাল লিডারের মতো কথা বলছেন। পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।

পরে সাংবাদিকদের কাছে বিএনপি মহাসচিব অভিযোগ করেন, আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না। তারা মিথ্যা কথা বলছে।

তিনি বলেন, পূর্বনির্ধারিত ১০ ডিসেম্বরের আমাদের ঢাকা বিভাগীয় শান্তিপূর্ণ গণসমাবেশ নস্যাৎ করতে সরকার হীন পরিকল্পনা করছে। ১০ তারিখে আমাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ হবে।

বিএনপির অফিস খুলে দেওয়ার দাবি জানান মির্জা ফখরুল। পাশাপাশি অবিলম্বে বিএনপি কার্যালয় খুলে দেওয়া এবং আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানান মির্জা ফখরুল।

এসময় আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকার গণসমাবেশ সুষ্ঠুভাবে করতে সরকারের কাছে সহযোগিতা চান বিএনপি মহাসচিব।