ঢাকা ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আবারও কম্বোডিয়াকে হারাল বাংলাদেশ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৭:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০২৩
  • / ৪৬৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ক্রীড়া ডেস্ক: সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নামার আগে প্রস্তুটিটা ভালোই হলো বাংলাদেশের। নমপেন অলিম্পিক স্টেডিয়ামে স্বাগতিক কম্বোডিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে জামাল ভূঁইয়ার দল। একমাত্র গোলটি করেছেন মজিবর রহমান জনি। গত সেপ্টেম্বরেও কম্বোডিয়ার মাঠে তাদেরকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

জয় পেলেও বাংলাদেশের বিপক্ষে কম্বোডিয়া পুরো ম্যাচই নিয়ন্ত্রিত ও পরিকল্পিত ফুটবল খেলেছে। বল পজিশন ও নিয়ন্ত্রণে তারা এগিয়ে ছিল। গোলে সমতা কিংবা ম্যাচটি জিততেও পারতো স্বাগতিকরা। কিন্তু গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো দুর্দান্ত কয়েকটি সেভ করে বাংলাদেশকে উদ্ধার করেছেন।

২৫ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের লম্বা ক্রসে দেওয়া বল বক্সের ফাঁকা জায়গায় পান জনি। এরপর প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারকে পেছনে ফেলে গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে বল ঠেলে দেন জালে। গোললাইন অতিক্রম করার পর অলিম্পিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের ডাগআউটে বয়ে যায় তুমুল আনন্দ-উল্লাস।

বাংলাদেশ প্রথমার্ধে লিডে থাকলেও স্বাগতিকরা বল পজিশন ও আক্রমণে এগিয়ে ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে বাংলাদেশ তুলনামূলক কিছুটা গুছিয়ে ওঠে। তবে একইভাবে আক্রমণের ধারা অব্যাহত রাখে কম্বোডিয়া। তবে শেষ পর্যন্ত তারা গোলের দেখা পায়নি। ফলে বাংলাদেশ ১-০ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আবারও কম্বোডিয়াকে হারাল বাংলাদেশ

আপডেট সময় : ১০:২৭:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০২৩

ক্রীড়া ডেস্ক: সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নামার আগে প্রস্তুটিটা ভালোই হলো বাংলাদেশের। নমপেন অলিম্পিক স্টেডিয়ামে স্বাগতিক কম্বোডিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে জামাল ভূঁইয়ার দল। একমাত্র গোলটি করেছেন মজিবর রহমান জনি। গত সেপ্টেম্বরেও কম্বোডিয়ার মাঠে তাদেরকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

জয় পেলেও বাংলাদেশের বিপক্ষে কম্বোডিয়া পুরো ম্যাচই নিয়ন্ত্রিত ও পরিকল্পিত ফুটবল খেলেছে। বল পজিশন ও নিয়ন্ত্রণে তারা এগিয়ে ছিল। গোলে সমতা কিংবা ম্যাচটি জিততেও পারতো স্বাগতিকরা। কিন্তু গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো দুর্দান্ত কয়েকটি সেভ করে বাংলাদেশকে উদ্ধার করেছেন।

২৫ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের লম্বা ক্রসে দেওয়া বল বক্সের ফাঁকা জায়গায় পান জনি। এরপর প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারকে পেছনে ফেলে গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে বল ঠেলে দেন জালে। গোললাইন অতিক্রম করার পর অলিম্পিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের ডাগআউটে বয়ে যায় তুমুল আনন্দ-উল্লাস।

বাংলাদেশ প্রথমার্ধে লিডে থাকলেও স্বাগতিকরা বল পজিশন ও আক্রমণে এগিয়ে ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে বাংলাদেশ তুলনামূলক কিছুটা গুছিয়ে ওঠে। তবে একইভাবে আক্রমণের ধারা অব্যাহত রাখে কম্বোডিয়া। তবে শেষ পর্যন্ত তারা গোলের দেখা পায়নি। ফলে বাংলাদেশ ১-০ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।