ঢাকা ০৫:২২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আনার চোরাচালানে জড়িত, তা কখনোই বলিনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৪:৩০:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
  • / ৪১৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কলকাতায় খুন হওয়া সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার চোরাচালানে জড়িত ছিলেন- এমন কথা কখনোই বলা হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে হাইওয়ে পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এমপির এলাকাটি সন্ত্রাস প্রবণ। তাই হত্যার মোটিভ উদঘাটনে তদন্ত চলছে। আমরা কখনো বলিনি যে, চোরাচালান ও রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে তিনি খুন হয়েছেন।

ওখানে সত্যিকারে কী হয়েছে সেটা আমাদের জানতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, আমরা তদন্ত করছি, তদন্তের পরে আপনাদের সব কিছু জানাবো।

সংসদ সদস্যের মেয়ে সন্দেহভাজনদের নাম বলেছেন। তাদের মধ্যে কারা আছেন তা জানতে চাওয়া হয়। জবাবে আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, যখন তদন্ত চলে তখন আমাদের মন্ত্রী, আইজিপি কিংবা তদন্তকারী কর্মকর্তার পক্ষ থেকে তদন্ত না করে কোনো কিছু বলা সম্ভব না। আমরা মনে করি তদন্ত শেষ হলে এগুলো নিয়ে কথা বলবো।

ঝিনাইদহ-৪ আসনের তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্যকে নির্মমভাবে খুনের ঘটনার রহস্য ডালপালা মেলছে। হুন্ডি ও চোরাচালানের অর্থের ভাগাভাগিতে আনার খুন হয়েছেন- বিভিন্ন গণমাধ্যমে এমন সংবাদ প্রকাশিত হলেও জেলা আওয়ামী লীগের নেতা গ্যাস বাবু গ্রেপ্তারের পর এই হত্যাকাণ্ড রাজনৈতিক কিনা তা নিয়ে জল্পনা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আনার চোরাচালানে জড়িত, তা কখনোই বলিনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৪:৩০:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

কলকাতায় খুন হওয়া সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার চোরাচালানে জড়িত ছিলেন- এমন কথা কখনোই বলা হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে হাইওয়ে পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এমপির এলাকাটি সন্ত্রাস প্রবণ। তাই হত্যার মোটিভ উদঘাটনে তদন্ত চলছে। আমরা কখনো বলিনি যে, চোরাচালান ও রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে তিনি খুন হয়েছেন।

ওখানে সত্যিকারে কী হয়েছে সেটা আমাদের জানতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, আমরা তদন্ত করছি, তদন্তের পরে আপনাদের সব কিছু জানাবো।

সংসদ সদস্যের মেয়ে সন্দেহভাজনদের নাম বলেছেন। তাদের মধ্যে কারা আছেন তা জানতে চাওয়া হয়। জবাবে আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, যখন তদন্ত চলে তখন আমাদের মন্ত্রী, আইজিপি কিংবা তদন্তকারী কর্মকর্তার পক্ষ থেকে তদন্ত না করে কোনো কিছু বলা সম্ভব না। আমরা মনে করি তদন্ত শেষ হলে এগুলো নিয়ে কথা বলবো।

ঝিনাইদহ-৪ আসনের তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্যকে নির্মমভাবে খুনের ঘটনার রহস্য ডালপালা মেলছে। হুন্ডি ও চোরাচালানের অর্থের ভাগাভাগিতে আনার খুন হয়েছেন- বিভিন্ন গণমাধ্যমে এমন সংবাদ প্রকাশিত হলেও জেলা আওয়ামী লীগের নেতা গ্যাস বাবু গ্রেপ্তারের পর এই হত্যাকাণ্ড রাজনৈতিক কিনা তা নিয়ে জল্পনা চলছে।