ঢাকা ০৭:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আট মাসে হাফেজ হলেন শিশু সাদাফ

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:২১:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৪২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মাত্র আট মাস ১১ দিনে পবিত্র কোরআনের হাফেজ হয়ে অনন্য গৌরব অর্জন করেছেন মো. সাদাফ। ১০ বছর বয়সী এই শিশুর বাড়ি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া পৌরসভার চালিয়াগোপ গ্রামে। তার বাবার নাম মো. সিরাজুল ইসলাম। তিনি পেশায় একজন কৃষক। সাদাফ উপজেলার চরফরাদী ইউনিয়নের হিজলিয়া গ্রামের মীরবাড়িতে অবস্থিত হজরত আবু হুরায়রা (রা:) তাহফিজুল কোরআন মাদ্রাসার হিফজ বিভাগের শিক্ষার্থী। এখানেই তিনি ২৫১ দিনে পবিত্র কোরআনের হিফজ সম্পন্ন করেছেন।

মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি রাকিব বিন শওকত বলেন, সাদাফ এই মাদ্রাসায় ভর্তি হয় ২০২৩ সালের জুন মাসে। আমাদের মাদ্রাসায় সে কায়দা থেকে পড়া শুরু করে। শুরুতেই প্রতিদিন চার-পাঁচ পৃষ্টা করে সবক প্রদান করতো। মাশাআল্লাহ, তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, একাগ্রতা ও আন্তরিকতায় তাকে আজ এত অল্প দিনে হিফজ সম্পন্ন করতে সাহায্য করেছে। আমরা তার সার্বিক উন্নতি কামনা করছি।

মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ মাওলানা ক.ম শফিকুজ্জামান বলেন, উন্নত কারিকুলাম ও ক্যাডেট পদ্ধতিতে ২০২০ সালে মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এতে হিফজ বিভাগের পাশাপাশি বাংলা ও ইংরেজী পড়ানো হয়। এতে ভালো মানের শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে পাঠদান শুরু করি। এতো অল্প দিনে সাফল্যের মুখ দেখতে পারাটা সত্যিই গৌরবের বিষয়। আমি সাদাফের উত্তোরত্তোর উন্নতি কামনা করছি।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

আট মাসে হাফেজ হলেন শিশু সাদাফ

আপডেট সময় : ০৪:২১:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মাত্র আট মাস ১১ দিনে পবিত্র কোরআনের হাফেজ হয়ে অনন্য গৌরব অর্জন করেছেন মো. সাদাফ। ১০ বছর বয়সী এই শিশুর বাড়ি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া পৌরসভার চালিয়াগোপ গ্রামে। তার বাবার নাম মো. সিরাজুল ইসলাম। তিনি পেশায় একজন কৃষক। সাদাফ উপজেলার চরফরাদী ইউনিয়নের হিজলিয়া গ্রামের মীরবাড়িতে অবস্থিত হজরত আবু হুরায়রা (রা:) তাহফিজুল কোরআন মাদ্রাসার হিফজ বিভাগের শিক্ষার্থী। এখানেই তিনি ২৫১ দিনে পবিত্র কোরআনের হিফজ সম্পন্ন করেছেন।

মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি রাকিব বিন শওকত বলেন, সাদাফ এই মাদ্রাসায় ভর্তি হয় ২০২৩ সালের জুন মাসে। আমাদের মাদ্রাসায় সে কায়দা থেকে পড়া শুরু করে। শুরুতেই প্রতিদিন চার-পাঁচ পৃষ্টা করে সবক প্রদান করতো। মাশাআল্লাহ, তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, একাগ্রতা ও আন্তরিকতায় তাকে আজ এত অল্প দিনে হিফজ সম্পন্ন করতে সাহায্য করেছে। আমরা তার সার্বিক উন্নতি কামনা করছি।

মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ মাওলানা ক.ম শফিকুজ্জামান বলেন, উন্নত কারিকুলাম ও ক্যাডেট পদ্ধতিতে ২০২০ সালে মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এতে হিফজ বিভাগের পাশাপাশি বাংলা ও ইংরেজী পড়ানো হয়। এতে ভালো মানের শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে পাঠদান শুরু করি। এতো অল্প দিনে সাফল্যের মুখ দেখতে পারাটা সত্যিই গৌরবের বিষয়। আমি সাদাফের উত্তোরত্তোর উন্নতি কামনা করছি।

 

বাখ//আর