ঢাকা ০১:৩৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আওয়ামী লীগ শক্তি প্রয়োগ করে ক্ষমতায় আছে : মির্জা ফখরুল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৫৫:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৮৬ বার পড়া হয়েছে

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন, আওয়ামী লীগ সুদূরপ্রসারী চিন্তা করে তাদের ঘোষণা অনুযায়ী ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে নীলনকশা অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করেছে। আওয়ামী লীগ শক্তি প্রয়োগ করে ক্ষমতায় টিকে আছে।

আজ রোববার রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে ‘নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক ফোরাম নামে একটি সংগঠন এর আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ শক্তি প্রয়োগ করে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আছে। সরকার ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। ব্রিটিশ, পাকিস্তান আমলের দুঃশাসনকে আওয়ামী লীগ ছাড়িয়ে গেছে। কেউ কথা বলতে সাহস পাচ্ছে না।

তিনি বলেন, বিআরটি প্রকল্প গলার কাঁটা হয়ে গেছে ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আগে পদত্যাগ করা উচিত ছিল।

অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি যেখানে পৌঁছেছে তাতে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন ছাড়া গণতন্ত্র রক্ষা সম্ভব নয়। সংবিধান কোনো বাইবেল নয়, এটি মানুষের জন্য।

তিনি বলেন, জনগণের স্বার্থে সংবিধান সংশোধন করে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের বিধান সংযোজন করা যেতে পারে। যা পরে আইনসিদ্ধ করে নেওয়া যেতে পারে। যে নামেই হোক নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা সংবিধানে সংযোজন করতে হবে।

আলোচনায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ সংগঠনের নেতারা অংশ নেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আওয়ামী লীগ শক্তি প্রয়োগ করে ক্ষমতায় আছে : মির্জা ফখরুল

আপডেট সময় : ০৮:৫৫:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন, আওয়ামী লীগ সুদূরপ্রসারী চিন্তা করে তাদের ঘোষণা অনুযায়ী ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে নীলনকশা অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করেছে। আওয়ামী লীগ শক্তি প্রয়োগ করে ক্ষমতায় টিকে আছে।

আজ রোববার রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে ‘নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক ফোরাম নামে একটি সংগঠন এর আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ শক্তি প্রয়োগ করে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আছে। সরকার ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। ব্রিটিশ, পাকিস্তান আমলের দুঃশাসনকে আওয়ামী লীগ ছাড়িয়ে গেছে। কেউ কথা বলতে সাহস পাচ্ছে না।

তিনি বলেন, বিআরটি প্রকল্প গলার কাঁটা হয়ে গেছে ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আগে পদত্যাগ করা উচিত ছিল।

অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি যেখানে পৌঁছেছে তাতে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন ছাড়া গণতন্ত্র রক্ষা সম্ভব নয়। সংবিধান কোনো বাইবেল নয়, এটি মানুষের জন্য।

তিনি বলেন, জনগণের স্বার্থে সংবিধান সংশোধন করে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের বিধান সংযোজন করা যেতে পারে। যা পরে আইনসিদ্ধ করে নেওয়া যেতে পারে। যে নামেই হোক নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা সংবিধানে সংযোজন করতে হবে।

আলোচনায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ সংগঠনের নেতারা অংশ নেন।