ঢাকা ১০:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

আইলার মতোই রিমালের তাণ্ডব শুরু, উপকূলে আতঙ্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৬:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪
  • / ৪৩৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

প্রবল ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ভয়ঙ্কর উত্তাল সাগর। তীব্র জোয়ারের ধাক্কায় ভেঙে পড়ছে উপকূল রক্ষা বাঁধ। হু হু করে লোকালয় ঢুকে পড়ছে সাগরের পানি। প্লাবিত হচ্ছে বিস্তীর্ণ এলাকা। বাগেরহাটের মোংলায় অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে গেছে একটি ট্রলারও।

দুপুর থেকেই দমকা ঝড়ো হাওয়ার শুরু হওয়ায় জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হয়েছে সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ এলাকা। বাদাবনে ভূমি ভেসে যাচ্ছে কমপক্ষে পাঁচ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাসে। ডুবে গেছে হিরণ পয়েন্টের বিশ্ব ঐতিহ্যের স্মৃতি ফলক।

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীর দক্ষিণ চরমোন্তাজ গ্রামের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি ঢুকেছে লোকালয়৷ রাঙ্গাবালীর চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের চারটি গ্রামে জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হয়েছে রাঙ্গাবালীর নীচু এলাকাগুলো।

প্রবল জলোচ্ছ্বাসের তোড়ে কলাপাড়ায় চাকামইয়া ইউনিয়নের বটতলা এলাকার বেড়িবাঁধ পানির ভেঙ্গে গেছে। পানি ঢুকছে পাঁচ গ্রামে। জোয়ারের তোড়ে ধসে পড়েছে চর বালিয়াতলী বেড়িবাঁধের রিভার সাইডের প্রায় ১০ ফুট অংশ।

বঙ্গোপসাগর থেকে বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসা রিমাল আরও শক্তিশালী হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এর প্রভাবে পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও কক্সবাজার বিমানবন্দরে ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে অভ্যন্তরীণ নৌযান চলাচল। সব মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষদের নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

পনের বছর আগে বাংলাদেশের উপকূল তছনছ করে দেশ প্রবল ঘূর্ণিঝড় আইলা। ২৫ মে ঘূর্ণিঝড় আইলার আঘাতে খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরাসহ উপকূলের বিভিন্ন স্থানে ৫৯৭ কিলোমিটার বাঁধ জলোচ্ছ্বাসে ভেসে যায়। টানা ১৫ ঘণ্টার ঝড় ও ১২ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলীয় এলাকা লন্ডভন্ড হয়ে যায়।

ঘূর্ণিঝড় রিমালও আইলার মতো একই ক্যাটাগরির বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, আইলার মত একই ক্যাটাগরির ঘূর্ণিঝড় রিমাল। তবে প্রত্যেকটি স্টর্ম বডিই আলাদা বৈশিষ্ট্য থাকে।

আবহাওয়া অফিস বলেছে, সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরের ৩-৪ ঘণ্টার মধ্যে মোংলার নিকট দিয়ে ভারতের সাগর দ্বীপ ও খেপুপাড়া অতিক্রম করতে পারে রিমাল। এর নিম্নভাগ অতিক্রম অব্যাহত থাকবে।

পরিচালক আজিজুর রহমান বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল অতিক্রম করার সময় বাতাসের গতিবেগ ৯০ থেকে ১২০ পর্যন্তই থাকবে। পটুয়াখালীতে দুপুরে ৭২ কিমি প্রতিঘন্টা বাতাস রেকর্ড হয়েছে। এখনো এর গতিপথ উত্তরমুখী। কেন্দ্র অতিক্রমের পর এর নিম্নভাগের প্রভাব থাকবে সারারাত। স্থলভাগে পুরোপুরি ওঠার এটি দুর্বল হয়ে স্থলচাপ আকারে থাকবে। এর প্রভাবে প্রবল বৃষ্টি হবে। দিনে গড়ে ২০০-৩০০ মিলিমিটার বৃষ্টি হতে পারে। সামনে এগিয়ে আসার গতি ১৩ কিমি আর কেন্দ্রের গতি ৯০-১২০। ঢাকায় বৃষ্টি এবং বাতাস থাকবে রোববার রাত থেকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আইলার মতোই রিমালের তাণ্ডব শুরু, উপকূলে আতঙ্ক

আপডেট সময় : ০৫:৫৬:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

প্রবল ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ভয়ঙ্কর উত্তাল সাগর। তীব্র জোয়ারের ধাক্কায় ভেঙে পড়ছে উপকূল রক্ষা বাঁধ। হু হু করে লোকালয় ঢুকে পড়ছে সাগরের পানি। প্লাবিত হচ্ছে বিস্তীর্ণ এলাকা। বাগেরহাটের মোংলায় অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে গেছে একটি ট্রলারও।

দুপুর থেকেই দমকা ঝড়ো হাওয়ার শুরু হওয়ায় জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হয়েছে সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ এলাকা। বাদাবনে ভূমি ভেসে যাচ্ছে কমপক্ষে পাঁচ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাসে। ডুবে গেছে হিরণ পয়েন্টের বিশ্ব ঐতিহ্যের স্মৃতি ফলক।

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীর দক্ষিণ চরমোন্তাজ গ্রামের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি ঢুকেছে লোকালয়৷ রাঙ্গাবালীর চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের চারটি গ্রামে জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হয়েছে রাঙ্গাবালীর নীচু এলাকাগুলো।

প্রবল জলোচ্ছ্বাসের তোড়ে কলাপাড়ায় চাকামইয়া ইউনিয়নের বটতলা এলাকার বেড়িবাঁধ পানির ভেঙ্গে গেছে। পানি ঢুকছে পাঁচ গ্রামে। জোয়ারের তোড়ে ধসে পড়েছে চর বালিয়াতলী বেড়িবাঁধের রিভার সাইডের প্রায় ১০ ফুট অংশ।

বঙ্গোপসাগর থেকে বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসা রিমাল আরও শক্তিশালী হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এর প্রভাবে পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও কক্সবাজার বিমানবন্দরে ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে অভ্যন্তরীণ নৌযান চলাচল। সব মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষদের নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

পনের বছর আগে বাংলাদেশের উপকূল তছনছ করে দেশ প্রবল ঘূর্ণিঝড় আইলা। ২৫ মে ঘূর্ণিঝড় আইলার আঘাতে খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরাসহ উপকূলের বিভিন্ন স্থানে ৫৯৭ কিলোমিটার বাঁধ জলোচ্ছ্বাসে ভেসে যায়। টানা ১৫ ঘণ্টার ঝড় ও ১২ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলীয় এলাকা লন্ডভন্ড হয়ে যায়।

ঘূর্ণিঝড় রিমালও আইলার মতো একই ক্যাটাগরির বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, আইলার মত একই ক্যাটাগরির ঘূর্ণিঝড় রিমাল। তবে প্রত্যেকটি স্টর্ম বডিই আলাদা বৈশিষ্ট্য থাকে।

আবহাওয়া অফিস বলেছে, সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরের ৩-৪ ঘণ্টার মধ্যে মোংলার নিকট দিয়ে ভারতের সাগর দ্বীপ ও খেপুপাড়া অতিক্রম করতে পারে রিমাল। এর নিম্নভাগ অতিক্রম অব্যাহত থাকবে।

পরিচালক আজিজুর রহমান বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল অতিক্রম করার সময় বাতাসের গতিবেগ ৯০ থেকে ১২০ পর্যন্তই থাকবে। পটুয়াখালীতে দুপুরে ৭২ কিমি প্রতিঘন্টা বাতাস রেকর্ড হয়েছে। এখনো এর গতিপথ উত্তরমুখী। কেন্দ্র অতিক্রমের পর এর নিম্নভাগের প্রভাব থাকবে সারারাত। স্থলভাগে পুরোপুরি ওঠার এটি দুর্বল হয়ে স্থলচাপ আকারে থাকবে। এর প্রভাবে প্রবল বৃষ্টি হবে। দিনে গড়ে ২০০-৩০০ মিলিমিটার বৃষ্টি হতে পারে। সামনে এগিয়ে আসার গতি ১৩ কিমি আর কেন্দ্রের গতি ৯০-১২০। ঢাকায় বৃষ্টি এবং বাতাস থাকবে রোববার রাত থেকে।