ঢাকা ১২:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

অশ্রুসিক্ত বিশ্বকাপ থেকে বিদায় বেলজিয়ামের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২১:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৪৫৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্পোর্টস ডেস্ক : 

বেলজিয়ামের গোল্ডেন জেনারেশনের এটিই ছিল শেষ বিশ্বকাপ। ডি ব্রুইন, লুকাকু, হ্যাজার্ডদের মত এক রাশ তারকায় ঠাসা বেলজিয়াম দল ২০১৮ বিশ্বকাপে তৃতীয় হয়ে এই বিশ্বকাপে ভালো করার আশা নিয়ে এসেছিল।

কাতার বিশ্বকাপের এফ-গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে শেষ ষোলোতে যেতে জয়ের কোনো বিকল্প ছিল না বেলজিয়ামের। বাঁচা-মরার লড়াইয়ে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে টুর্নামেন্ট বিদায় নিলো বেলজিয়াম।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত ৯ টায় আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়ামে মাঠে নামবে এই দু’দল। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম। তবে গোলের দেখা না পেলে গোলশূন্য থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে দু’দল। দ্বিতীয়ার্ধেও কোন গোল না হলে গোলশূন্য ড্র হয় ম্যাচটি। আর এতেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় বেলজিয়াম। আর গ্রুপ রানার আপ হয়ে নক আউট পর্ব নিশ্চিত করে ক্রোয়েশিয়া।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম। বেশ কিছু গোলের সুযোগ পায় দু’দল। ম্যাচের ১৩ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায় বেলজিয়াম। সেখান থেকে বল পান ক্যারাসকো। তবে সেখান থেকে তার নেওয়া শট চলে যায় ক্রসবারের অনেক ওপর দিয়ে।

এরপর ম্যাচের ১৫ মিনিটে ফ্রি কিক পায় ক্রোয়েশিয়া। সেই ফ্রি কিক থেকে ফাউলের কারণে পেনাল্টি পায় ক্রোয়েশিয়া। তবে রেফারি পানাল্টি চেক করে অফ সাইডের সিদ্ধান্ত দেন। ফলে আর গোলের দেখা পায় না ক্রোয়েশিয়া। এরপর ম্যাচের ১৮ মিনিটে ফের অ্যাটাকে যায় ক্রোয়েশিয়া। তবে গোল করতে ব্যর্থ হয় তারা।

ম্যাচের ২০ মিনিটে ফের আক্রমণে উঠে ক্রোয়েশিয়া। তবে সেখান থেকেও কোন গোল পায় না তারা। এর মাঝে বেশ কিছু আক্রমণ করে বেলজিয়াম। তবে তা থেকে সুবিধা করতে পারেনি তারা। অন্যদিকে ম্যাচের ৩২ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায়। ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শট চলে যায় পোস্টের ওপর দিয়ে। এরপর গোলের আশায় একাধিক আক্রমণ করে দু’দল।

তবে শেষ পর্যন্ত গোল না হলে গোলশূন্য থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম।
বিরতি থেকে ফিরেই গোলের আশায় মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম।

ম্যাচের ৫৪ মিনিটে বল নিয়ে বেলজিয়ামের ডি বক্সে ঢুকে পোস্টে শট করেন লুকা মড্রিচ। তবে তা রুখে দেন গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। এরপর আবারও গোলমুখে শট করলে আবারো সেভ করেন কোর্তোয়া।

ম্যাচের ৫৯ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া আন্টি বুডিমারে শট চলে যায় ক্রসবারে ওপর দিয়ে। অন্যদিকে ম্যাচের ৫৯ মিনিতে কাউন্টার অ্যাটাকে যায় বেলজিয়াম। ডি বক্সের ভেতর থেকে লুকাকুর নেওয়া শট সাইড বারে লেগে ফিরে আসে। ফলে গোল বঞ্চিত হয় বেলজিয়াম। এরপর ম্যাচের ৬২ মিনিটে ডান দিক থেকে ক্রস করেন ডি ব্রুইনা। সেই ক্রস থেকে হেড করেন লুকাকু। তবে তা চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে।

এরপর গোলের লক্ষ্যে একাধিকা আক্রমন করে দু’দল। তবে গোলের দেখা পায় না কেউ। ম্যাচের ৭৮ মিনিটে কর্নার আদায় করে বেলজিয়াম। কর্নার থেকে ভেসে আসা বলে হেড করলেও তা চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে। ফলে গোল পাওয়া হয় না বেলজিয়ামের। অন্যদিকে ম্যাচের ৮০ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায় ক্রোয়েশিয়াও। তবে তা আটকে দেয় বেলজিয়ামের ডেফেন্ডাররা।

ম্যাচের ৮০ মিনিটে বাম দিক থেকে আক্রমণে যায় ক্রোয়েশিয়া। ডি বক্সে ঢুকে বল ক্রস করলেও সেখানে কেউ না থাকায় আর গোল পাওয়া হয় না। ম্যাচের ৮৪ মিনিতে কর্নারে আদায় করে বেলজিয়াম। ডি ব্রুইনার নেওয়া কর্নার থেকে হেড করলেও তা কোন বিপদ ঘটাতে পারেনি। ম্যাচের ৯০ মিনিটে ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করে লুকাকু। ডান দিক থেকে বাড়ানো বলে ফাঁকা পোস্টে বল জালে জড়াতে পারেননি তিনি।

শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে গোলশূন্য ড্র করে মাঠ ছাড়ে দু’দল। এই ড্র এর ফলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলো বেলজিয়াম। আর গ্রুপ রানার আপ হয়ে নক আউট পর্বে পা রাখলো ক্রোয়েশিয়া।

নিউজটি শেয়ার করুন

অশ্রুসিক্ত বিশ্বকাপ থেকে বিদায় বেলজিয়ামের

আপডেট সময় : ১১:২১:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক : 

বেলজিয়ামের গোল্ডেন জেনারেশনের এটিই ছিল শেষ বিশ্বকাপ। ডি ব্রুইন, লুকাকু, হ্যাজার্ডদের মত এক রাশ তারকায় ঠাসা বেলজিয়াম দল ২০১৮ বিশ্বকাপে তৃতীয় হয়ে এই বিশ্বকাপে ভালো করার আশা নিয়ে এসেছিল।

কাতার বিশ্বকাপের এফ-গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে শেষ ষোলোতে যেতে জয়ের কোনো বিকল্প ছিল না বেলজিয়ামের। বাঁচা-মরার লড়াইয়ে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে টুর্নামেন্ট বিদায় নিলো বেলজিয়াম।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত ৯ টায় আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়ামে মাঠে নামবে এই দু’দল। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম। তবে গোলের দেখা না পেলে গোলশূন্য থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে দু’দল। দ্বিতীয়ার্ধেও কোন গোল না হলে গোলশূন্য ড্র হয় ম্যাচটি। আর এতেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় বেলজিয়াম। আর গ্রুপ রানার আপ হয়ে নক আউট পর্ব নিশ্চিত করে ক্রোয়েশিয়া।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম। বেশ কিছু গোলের সুযোগ পায় দু’দল। ম্যাচের ১৩ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায় বেলজিয়াম। সেখান থেকে বল পান ক্যারাসকো। তবে সেখান থেকে তার নেওয়া শট চলে যায় ক্রসবারের অনেক ওপর দিয়ে।

এরপর ম্যাচের ১৫ মিনিটে ফ্রি কিক পায় ক্রোয়েশিয়া। সেই ফ্রি কিক থেকে ফাউলের কারণে পেনাল্টি পায় ক্রোয়েশিয়া। তবে রেফারি পানাল্টি চেক করে অফ সাইডের সিদ্ধান্ত দেন। ফলে আর গোলের দেখা পায় না ক্রোয়েশিয়া। এরপর ম্যাচের ১৮ মিনিটে ফের অ্যাটাকে যায় ক্রোয়েশিয়া। তবে গোল করতে ব্যর্থ হয় তারা।

ম্যাচের ২০ মিনিটে ফের আক্রমণে উঠে ক্রোয়েশিয়া। তবে সেখান থেকেও কোন গোল পায় না তারা। এর মাঝে বেশ কিছু আক্রমণ করে বেলজিয়াম। তবে তা থেকে সুবিধা করতে পারেনি তারা। অন্যদিকে ম্যাচের ৩২ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায়। ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শট চলে যায় পোস্টের ওপর দিয়ে। এরপর গোলের আশায় একাধিক আক্রমণ করে দু’দল।

তবে শেষ পর্যন্ত গোল না হলে গোলশূন্য থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম।
বিরতি থেকে ফিরেই গোলের আশায় মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম।

ম্যাচের ৫৪ মিনিটে বল নিয়ে বেলজিয়ামের ডি বক্সে ঢুকে পোস্টে শট করেন লুকা মড্রিচ। তবে তা রুখে দেন গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। এরপর আবারও গোলমুখে শট করলে আবারো সেভ করেন কোর্তোয়া।

ম্যাচের ৫৯ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া আন্টি বুডিমারে শট চলে যায় ক্রসবারে ওপর দিয়ে। অন্যদিকে ম্যাচের ৫৯ মিনিতে কাউন্টার অ্যাটাকে যায় বেলজিয়াম। ডি বক্সের ভেতর থেকে লুকাকুর নেওয়া শট সাইড বারে লেগে ফিরে আসে। ফলে গোল বঞ্চিত হয় বেলজিয়াম। এরপর ম্যাচের ৬২ মিনিটে ডান দিক থেকে ক্রস করেন ডি ব্রুইনা। সেই ক্রস থেকে হেড করেন লুকাকু। তবে তা চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে।

এরপর গোলের লক্ষ্যে একাধিকা আক্রমন করে দু’দল। তবে গোলের দেখা পায় না কেউ। ম্যাচের ৭৮ মিনিটে কর্নার আদায় করে বেলজিয়াম। কর্নার থেকে ভেসে আসা বলে হেড করলেও তা চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে। ফলে গোল পাওয়া হয় না বেলজিয়ামের। অন্যদিকে ম্যাচের ৮০ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায় ক্রোয়েশিয়াও। তবে তা আটকে দেয় বেলজিয়ামের ডেফেন্ডাররা।

ম্যাচের ৮০ মিনিটে বাম দিক থেকে আক্রমণে যায় ক্রোয়েশিয়া। ডি বক্সে ঢুকে বল ক্রস করলেও সেখানে কেউ না থাকায় আর গোল পাওয়া হয় না। ম্যাচের ৮৪ মিনিতে কর্নারে আদায় করে বেলজিয়াম। ডি ব্রুইনার নেওয়া কর্নার থেকে হেড করলেও তা কোন বিপদ ঘটাতে পারেনি। ম্যাচের ৯০ মিনিটে ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করে লুকাকু। ডান দিক থেকে বাড়ানো বলে ফাঁকা পোস্টে বল জালে জড়াতে পারেননি তিনি।

শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে গোলশূন্য ড্র করে মাঠ ছাড়ে দু’দল। এই ড্র এর ফলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলো বেলজিয়াম। আর গ্রুপ রানার আপ হয়ে নক আউট পর্বে পা রাখলো ক্রোয়েশিয়া।