ঢাকা ১১:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

অযোধ্যার রামমন্দিরে হামলার হুমকি, হাই অ্যালার্ট জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:২৬:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৯২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আগামীকাল সোমবার (২২ জানুয়ারি) ভারতের অযোধ্যায় রামমন্দিরের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। মন্দির উদ্বোধনকে ঘিরে জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও। তবে উদ্বোধন ঘিরে ভয়াবহ হামলার হুমকি দিয়েছে পাকিস্তানের মদদপুষ্ট সশস্ত্র গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ। এই হুমকিকে ঘিরে ছড়িয়ে পড়েছে আতঙ্ক।

নিরীহ মুসলিমদের হত্যার পর মসজিদের জায়গায় মন্দিরটি উদ্বোধন হতে চলেছে বলে সশস্ত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। জঙ্গি সংগঠন নামেও পরিচিত জইশ-ই-মোহাম্মদের এমন হুমকির পরপরই ভারতের উত্তর প্রদেশজুড়ে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট (উচ্চ সতর্কতা)। সঙ্গে রামমন্দির চত্বর ও আশপাশের এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তবে জইশ-ই-মোহাম্মদের হুমকিকে পাত্তা দিতে নারাজ উত্তর প্রদেশ পুলিশ প্রশাসন।

উত্তর প্রদেশ প্রশাসন জানিয়েছে, শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) জঙ্গি সংগঠনের পক্ষ থেকে হুমকি দেয়া হয়েছে। এরপরই প্রশাসনের পক্ষ থেকে উত্তর প্রদেশজুড়ে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট। সেই সঙ্গে নির্মীয়মাণ রামমন্দির চত্বর এবং আশপাশের এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে দেশের সর্বত্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এরই মধ্যে জইশ-ইর এমন হুমকির পর দেশটির অন্যান্য স্থানেও নিরাপত্তা জোরদারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এদিকে, জইশ-ইর হুমকিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে উত্তর প্রদেশ পুলিশ প্রশাসন বলছে, আতঙ্ক ছড়াতেই এমন হুমকি দেয়া হয়েছে, পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের প্রক্সি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর কাছে থেকে। তবে সামগ্রিক পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে বলে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

রামমন্দির নিয়ে জইশ-ইর হুমকি এই প্রথম নয়। গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। জুবের খান নামে এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে উত্তর প্রদেশ পুলিশকে ই-মেল করা হয়। দুটি হুমকি ই-মেলের মাধ্যমে পাঠানো হয়। মেল পাঠানো ওই ব্যক্তি নিজেকে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের সদস্য বলে দাবি করেন। রাম মন্দিরের পাশাপাশি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং পুলিশের এসটিএফ প্রধানকেও দেয়া হয়েছিল বোমা মেরে হত্যার হুমকি।

আগামীকাল দুপুরে রামলালার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে অযোধ্যার রামমন্দিরের দরজা খুলে দেয়া হবে সাধারণ মানুষের জন্য। দুপুর ১২টা ১৫ মিনিট থেকে ১২টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে রামলালার মূর্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন প্রাদেশিক মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত।

নিউজটি শেয়ার করুন

অযোধ্যার রামমন্দিরে হামলার হুমকি, হাই অ্যালার্ট জারি

আপডেট সময় : ০৪:২৬:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪

আগামীকাল সোমবার (২২ জানুয়ারি) ভারতের অযোধ্যায় রামমন্দিরের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। মন্দির উদ্বোধনকে ঘিরে জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও। তবে উদ্বোধন ঘিরে ভয়াবহ হামলার হুমকি দিয়েছে পাকিস্তানের মদদপুষ্ট সশস্ত্র গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ। এই হুমকিকে ঘিরে ছড়িয়ে পড়েছে আতঙ্ক।

নিরীহ মুসলিমদের হত্যার পর মসজিদের জায়গায় মন্দিরটি উদ্বোধন হতে চলেছে বলে সশস্ত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। জঙ্গি সংগঠন নামেও পরিচিত জইশ-ই-মোহাম্মদের এমন হুমকির পরপরই ভারতের উত্তর প্রদেশজুড়ে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট (উচ্চ সতর্কতা)। সঙ্গে রামমন্দির চত্বর ও আশপাশের এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তবে জইশ-ই-মোহাম্মদের হুমকিকে পাত্তা দিতে নারাজ উত্তর প্রদেশ পুলিশ প্রশাসন।

উত্তর প্রদেশ প্রশাসন জানিয়েছে, শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) জঙ্গি সংগঠনের পক্ষ থেকে হুমকি দেয়া হয়েছে। এরপরই প্রশাসনের পক্ষ থেকে উত্তর প্রদেশজুড়ে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট। সেই সঙ্গে নির্মীয়মাণ রামমন্দির চত্বর এবং আশপাশের এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে দেশের সর্বত্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এরই মধ্যে জইশ-ইর এমন হুমকির পর দেশটির অন্যান্য স্থানেও নিরাপত্তা জোরদারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এদিকে, জইশ-ইর হুমকিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে উত্তর প্রদেশ পুলিশ প্রশাসন বলছে, আতঙ্ক ছড়াতেই এমন হুমকি দেয়া হয়েছে, পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের প্রক্সি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর কাছে থেকে। তবে সামগ্রিক পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে বলে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

রামমন্দির নিয়ে জইশ-ইর হুমকি এই প্রথম নয়। গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। জুবের খান নামে এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে উত্তর প্রদেশ পুলিশকে ই-মেল করা হয়। দুটি হুমকি ই-মেলের মাধ্যমে পাঠানো হয়। মেল পাঠানো ওই ব্যক্তি নিজেকে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের সদস্য বলে দাবি করেন। রাম মন্দিরের পাশাপাশি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং পুলিশের এসটিএফ প্রধানকেও দেয়া হয়েছিল বোমা মেরে হত্যার হুমকি।

আগামীকাল দুপুরে রামলালার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে অযোধ্যার রামমন্দিরের দরজা খুলে দেয়া হবে সাধারণ মানুষের জন্য। দুপুর ১২টা ১৫ মিনিট থেকে ১২টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে রামলালার মূর্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন প্রাদেশিক মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত।