ঢাকা ১২:৩৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

অপরাধ নিয়ন্ত্রনে মঠবাড়িয়া পৌর শহর সিসি ক্যামেরার আওতায়

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:১৭:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৪১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সোহেল, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি :

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌর শহরের কিশোর গ্যাংয়ের দৌড়াত্ব রোধ, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ও নানা অপরাধ নিয়ন্ত্রণে এবং অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িতদের চিহ্নিত করতে পৌরসভা এলাকা জুড়ে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। এসব ক্যামেরার ফুটেজ সরাসরি মঠবাড়িয়া থানার কন্ট্রোল রুমে ২৪ ঘন্টা মনিটরিং করছেন।

জানা গেছে, মঠবাড়িয়া পৌর প্রশাসনের অর্থায়নে ও মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের উদ্যোগে পৌর শহরের এখন পর্যন্ত ৩০ টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। সিসি ক্যামেরা স্থাপনের ফলে অপরাধ কমে আসবে বলে ধারনা সকল শ্রেণী পেশার লোক জনের। ইতোমধ্যে এর সুফল পেতে শুরু করেছে পৌর এবং উপজেলা বাসী।

পৌর প্রশাসক ও উপজেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বর বলেন, কিশোর গ্যাংয়ের দৌড়ত্ব, চুরি- ছিনতাইসহ বিভিন্ন প্রকার অপরাধ দমনে পৌরবাসী এবং উপজেলাবাসিকে আমি কথা দিয়ে ছিলাম। বিশেষ করে আমি উপজেলা বা পৌর শহরে আগত সকল জন সাধারণকে এবং শহরে বসবাসকারি পরিবারগুলেকে স্বস্তিতে রাখার জন্য এটা সামান্য উদ্যোগ মাত্র।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, অপরাধ নির্মূল ও রহস্য উদঘাটের জন্য প্রযুক্তির বিকল্প নেই। আধুনিক প্রযুক্তির প্রথম ও প্রধান অংশ হিসেবে পৌর শহরে সিসি ক্যামেরা স্থাপণ করা হয়েছে। এতে সকল প্রকার অপরাধ কমে আসবে। তিনি বাসা, বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকান ও ব্যাংক সহ গুরুত্বপূর্ণ সব জায়গায় সিসি ক্যামেরা ব্যবহারের আহ্বান জানান।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার এ বিষয়ে বলেন, মঠবাড়িয়া পৌর প্রশাসনের অর্থায়নে ইতিমধ্যে শহরে ৩০টি পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। উন্নত মানের ক্যাবল ও ক্যামেরা স্থাপনের এ প্রক্রিয়ায় আরও ১০টি ক্যামেরা যোগ হবে। কিশোর গ্যাং, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক চোরাচালান, মাদক সেবনসহ সব ধরনের অপরাধ এবং ছিনতাই ও চুরি-ডাকাতির হাত থেকে জনসাধারনের জান মাল রক্ষার জন্য উগ্যোটি নেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে পৌর সহরের সর্বত্রই সিসি ক্যামেরা স্থাপণ করা হবে।

 

বা/খ: জই

নিউজটি শেয়ার করুন

অপরাধ নিয়ন্ত্রনে মঠবাড়িয়া পৌর শহর সিসি ক্যামেরার আওতায়

আপডেট সময় : ০২:১৭:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

সোহেল, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি :

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌর শহরের কিশোর গ্যাংয়ের দৌড়াত্ব রোধ, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ও নানা অপরাধ নিয়ন্ত্রণে এবং অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িতদের চিহ্নিত করতে পৌরসভা এলাকা জুড়ে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। এসব ক্যামেরার ফুটেজ সরাসরি মঠবাড়িয়া থানার কন্ট্রোল রুমে ২৪ ঘন্টা মনিটরিং করছেন।

জানা গেছে, মঠবাড়িয়া পৌর প্রশাসনের অর্থায়নে ও মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের উদ্যোগে পৌর শহরের এখন পর্যন্ত ৩০ টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। সিসি ক্যামেরা স্থাপনের ফলে অপরাধ কমে আসবে বলে ধারনা সকল শ্রেণী পেশার লোক জনের। ইতোমধ্যে এর সুফল পেতে শুরু করেছে পৌর এবং উপজেলা বাসী।

পৌর প্রশাসক ও উপজেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বর বলেন, কিশোর গ্যাংয়ের দৌড়ত্ব, চুরি- ছিনতাইসহ বিভিন্ন প্রকার অপরাধ দমনে পৌরবাসী এবং উপজেলাবাসিকে আমি কথা দিয়ে ছিলাম। বিশেষ করে আমি উপজেলা বা পৌর শহরে আগত সকল জন সাধারণকে এবং শহরে বসবাসকারি পরিবারগুলেকে স্বস্তিতে রাখার জন্য এটা সামান্য উদ্যোগ মাত্র।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, অপরাধ নির্মূল ও রহস্য উদঘাটের জন্য প্রযুক্তির বিকল্প নেই। আধুনিক প্রযুক্তির প্রথম ও প্রধান অংশ হিসেবে পৌর শহরে সিসি ক্যামেরা স্থাপণ করা হয়েছে। এতে সকল প্রকার অপরাধ কমে আসবে। তিনি বাসা, বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকান ও ব্যাংক সহ গুরুত্বপূর্ণ সব জায়গায় সিসি ক্যামেরা ব্যবহারের আহ্বান জানান।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার এ বিষয়ে বলেন, মঠবাড়িয়া পৌর প্রশাসনের অর্থায়নে ইতিমধ্যে শহরে ৩০টি পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। উন্নত মানের ক্যাবল ও ক্যামেরা স্থাপনের এ প্রক্রিয়ায় আরও ১০টি ক্যামেরা যোগ হবে। কিশোর গ্যাং, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক চোরাচালান, মাদক সেবনসহ সব ধরনের অপরাধ এবং ছিনতাই ও চুরি-ডাকাতির হাত থেকে জনসাধারনের জান মাল রক্ষার জন্য উগ্যোটি নেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে পৌর সহরের সর্বত্রই সিসি ক্যামেরা স্থাপণ করা হবে।

 

বা/খ: জই