ঢাকা ০৯:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

অন্যান্য দেশের তুলনায় আমরা ভালো আছি : বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩৩:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৫৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের বাজারের তুলনায় আমরা ভালো আছি। ইংল্যান্ডে মানুষ দোকান থেকে তিনটির বেশি টমেটো কিনতে পারেন না। জার্মানির স্টোরগুলোতে তেলের তাক খালি পড়ে আছে। সারা বিশ্বের বাজারে একই অবস্থা। সেই বিবেচনায় আমরা ভালোই আছি।

রাজধানীর উত্তরায় আজ সোমবার (৩ এপ্রিল) টিসিবির পণ্য বিক্রি কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সব নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নয়। ধান, চাল, মাছ, মাংস ও মুরগির দাম বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কন্ট্রোল করে না। অথচ সবার ধারণা, পণ্যের দাম বাড়লেই এর দায়িত্ব বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের। তবে, আমরা চেষ্টা করি ভোক্তাদের যেন কষ্ট না হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে যেসব পণ্য সেগুলোর দাম আমরা ঠিক করে দেই। আমরা প্রত্যক্ষভাবে সেই সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করি।’

এসময় অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আগের চারটি রমজান মাসের তুলনায় এবারের রমজান মাসটি ভালোভাবে যাচ্ছে। বিশ্ববাজারে গভীর সংকট চলমান থাকলেও আমরা আমাদের নিত্যপণ্যের বাজার স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করেছি।’

টিপু মুনশি আরও বলেন, ‘বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে টিসিবির মাধ্যমে প্রতি মাসে আমরা এক কোটি পরিবারকে সাশ্রয়ী মূল্যে ডাল, তেল, চিনি এবং রমজান উপলক্ষে ছোলা ও ঢাকা শহরে খেঁজুর দিচ্ছি। প্রতি মাসে একবার দেই। কিন্তু রমজান মাসের কথা চিন্তা করে আমরা দুই বার একই ধরনের পণ্য দিচ্ছি। আমাদের দেশের দরিদ্রসীমায় আছে তিন কোটি থেকে সাড়ে তিন কোটি। আমরা কিন্তু তার চেয়েও বেশি সংখ্যক মানুষকে এই সুবিধা দিয়েছি।’

নিউজটি শেয়ার করুন

অন্যান্য দেশের তুলনায় আমরা ভালো আছি : বাণিজ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:৩৩:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের বাজারের তুলনায় আমরা ভালো আছি। ইংল্যান্ডে মানুষ দোকান থেকে তিনটির বেশি টমেটো কিনতে পারেন না। জার্মানির স্টোরগুলোতে তেলের তাক খালি পড়ে আছে। সারা বিশ্বের বাজারে একই অবস্থা। সেই বিবেচনায় আমরা ভালোই আছি।

রাজধানীর উত্তরায় আজ সোমবার (৩ এপ্রিল) টিসিবির পণ্য বিক্রি কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সব নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে নয়। ধান, চাল, মাছ, মাংস ও মুরগির দাম বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কন্ট্রোল করে না। অথচ সবার ধারণা, পণ্যের দাম বাড়লেই এর দায়িত্ব বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের। তবে, আমরা চেষ্টা করি ভোক্তাদের যেন কষ্ট না হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে যেসব পণ্য সেগুলোর দাম আমরা ঠিক করে দেই। আমরা প্রত্যক্ষভাবে সেই সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করি।’

এসময় অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আগের চারটি রমজান মাসের তুলনায় এবারের রমজান মাসটি ভালোভাবে যাচ্ছে। বিশ্ববাজারে গভীর সংকট চলমান থাকলেও আমরা আমাদের নিত্যপণ্যের বাজার স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করেছি।’

টিপু মুনশি আরও বলেন, ‘বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে টিসিবির মাধ্যমে প্রতি মাসে আমরা এক কোটি পরিবারকে সাশ্রয়ী মূল্যে ডাল, তেল, চিনি এবং রমজান উপলক্ষে ছোলা ও ঢাকা শহরে খেঁজুর দিচ্ছি। প্রতি মাসে একবার দেই। কিন্তু রমজান মাসের কথা চিন্তা করে আমরা দুই বার একই ধরনের পণ্য দিচ্ছি। আমাদের দেশের দরিদ্রসীমায় আছে তিন কোটি থেকে সাড়ে তিন কোটি। আমরা কিন্তু তার চেয়েও বেশি সংখ্যক মানুষকে এই সুবিধা দিয়েছি।’