বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
৬ দিনে ৭৪৫ কোটি ছাড়িয়েছে ‘পাঠান’ পুলের ধারে বসে চুরুট ধরালেন সুস্মিতা দেশে চার হাজার ৬৩৩টি ইটভাটা অবৈধ: সংসদে পরিবেশমন্ত্রী নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে : মহিলাবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী চার্লসের সেঞ্চুরিতে রেকর্ড গড়ে কুমিল্লার জয় মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন দেশ পেয়েছি : মেয়র আতিক দেশে উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে : রাষ্ট্রপতি আকাশে কেবিন ক্রুকে নারী যাত্রীর থাপ্পড় সাহস থাকলে দেশে আসুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পকেটে আহলে হাদিসের দুই কোটি ভোট : সংসদে এমপি রহমতুল্লাহ প্ররোচনায় পড়ে র‌্যাবের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা : সংসদে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কারামুক্ত যুবদল নেতা নয়ন ‘ভারতীয় ছবি রিলিজের পক্ষে সবাই থাকলেও আমি নেই’-রাউজানে অভিনেতা রুবেল ইসলামপুরে দৈনিক গণমুক্তি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত অবসরে গেলেন সকলের প্রিয় ফজলু স্যার

অজ্ঞাত গাড়ীর ধাক্কায় আহত রাউজানের সাহেদের মৃত্যু

অজ্ঞাত গাড়ীর ধাক্কায় আহত রাউজানের সাহেদের মৃত্যু

এম বেলাল উদ্দিন, রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
সকালে ঘর থেকে বের হয়ে মোটর বাইক নিয়ে যাচ্ছিলেন কর্মস্থলের একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে। পথিমধ্য বাঁধে বিপত্তি।কুয়াশাচ্ছন্ন চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়কের রাঙ্গুনীয়া বুড়ির দোকান এলাকায় অজ্ঞাত গাড়ি ধাক্কা দিলে মোটর বাইক সহ সাহেদ ছিটকে পড়ে সড়ক পেরিয়ে পাশের জমিনে। গাড়ির ধাক্কায় তার মাথার হেলমেট ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায়। স্থানিয়রা এগিয়ে এসে সাহেদকে অজ্ঞান অবস্থায় সেখান থেকে উদ্ধার করেন। পরিচয় পত্র সূত্রে খবর দেওয়া হয় তার কর্মস্থলের লোকজনকে। তারা সহ মিলে তাকে দ্রুত আন্দরকিল্লাহ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। চিকিৎসকদের প্রানপণ চেষ্টার পরও এক সেকেন্ডের জন্য তার জ্ঞান ফিরছিলনা।
ডাক্তারের ভাষায় তার মাথা পাটেনি, রক্ত করণও হয়নি তবে হেলমেটের চাপে তার ব্রেইন ৯৯ ভাগ ডেট হয়ে গিয়েছিল। যার কারনে তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। তার অবুঝ দুই শিশু কন্যা এখনো জানেনা তার বাবা দুনিয়াতে আর বেঁচে নেই! বাবার কি হয়েছিল তা বুঝার কিংবা জানারও বয়স এখনো তাদের হয়নি। পরিবারে চলছে শোকের মাতম। দু-শিশু কন্যা না কাঁদছে, না হাসছে?
গত ১০ জানুয়ারী সকালে সাহেদ আলম রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউপির ৭নং ওয়ার্ডের এয়াছিন নগর ছালেহ আহমদ তালুকদার বাড়ীর নিজ বাসা থেকে এনজিও সংস্থা ইপসার একটি অনুষ্টানে যোগ দিতে রাঙ্গুনীয়া উপজেলা সদরে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে ঘটে নির্মম এ সড়ক দূর্ঘটনা।
সাহেদ আলম সীতাকুন্ড উপজেলায় এনজিও সংস্থা ইফসার এরিয়া ম্যানেজার হিসাবে কর্মরত ছিলেন। তিনি সেদিন অফিসের নির্দেশে রাঙ্গুনীয়া উপজেলা সদরে ইফসার কর্মসূচীতে যোগ দিতে বাড়ী থেকে মোটর বাইক নিয়ে সেখানে যাচ্ছিলেন। সাহেদ দীর্ঘ ৮ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে (১৮ জানুয়ারী) বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় মৃত্যুবরণ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৩৫ বছর। মরহুম ইদ্রিছ মিয়ার ৫সন্তানের মধ্য সাহেদ সবার ছোট। সাহেদের স্ত্রী ও দু কন্যা সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে ছায়দার বয়স মাত্র ৬ বছর, সে জুবলী সরকারী প্রাইমারিতে পড়ে ক্লাস ওয়ানে, ছোট মেয়ে ছানিমনের বয়স মাত্র ৪ বছর।
নিহতের স্কুল বন্ধু ব্যবসায়ী আবদুর রশিদ স্বপন বলেন, সাহেদ অত্যন্ত সহজ-সরল, নম্র-ভদ্র, সদালাপী ছিলেন। সাহেদের চিকিৎসার জন্য মঙ্গলবার আমাদের বন্ধুরা মিলে ৫০ হাজার টাকা আমরা মেডিকেলে দিয়ে এসেছিলাম। আল্লাহর হুকুম তাকে বাঁচানো গেল না।
বা/খ: এসআর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *